কালচারাল একাডেমিতে হদি সম্প্রদায়ের ‘গাঁওবর্ত উৎসব-’ পালিত

প্রকাশিত: ৮:২২ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ৪, ২০২৪

রাজেশ গৌড়ঃ
নেত্রকোণার দুর্গাপুরে বিরিশিরি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর কালচারাল একাডেমির আয়োজনে হদি সম্প্রদায়ের গাঁওবর্ত উৎসব পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে রোববার বিকেলে একাডেমি হলরুমে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়।

আলোচনা সভায় কালচারাল একাডেমির পরিচালক গীতিকবি সুজন হাজংয়ের সভাপতিত্বে ও একাডেমি নৃত্য শিক্ষক মালা মার্থা আরেংয়ের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাখেন, সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব শাহনাজ সামাদ৷ বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রাখেন, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উপসচিব (পরিমেয় ঐতিহ্য শাখা) নিলুফার ইয়াসমিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা সোহরাব হোসেন তালুকদার, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল আজিজ, লেখক ও গবেষক আলী আহাম্মদ খান আইয়োব, ডন বস্কো কলেজের অধ্যক্ষ রুমন রাংসা, বাংলাদেশ হদি কল্যাণ পরিষদের সভাপতি লিটন দেব সেন, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর কালচারাল একাডেমির সদস্য সমীরণ কুমার সিংহ, সন্ধ্যারানী হাজং, কবি ক্রসওয়েল খকসী প্রমুখ।

প্রধান অতিথি বলেন, হদি সম্প্রদায়ের মানুষের ভাষাসহ কৃষ্টি-কালচার প্রায় হারিয়ে যাচ্ছে। তাই তাদের কৃষ্টি-কালচার ধরে রাখতে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় কাজ করছে। এ কাজে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

গাঁওবর্ত হলো হদি সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহী আদি ধর্ম বিশ্বাস। গাঁও অর্থ সমাজ আর বর্ত হলো পূজা।
সমাজকে বিশুদ্ধকরনের মাধ্যমে মানুষের রোগ ও বিপদ থেকে মুক্তির জন্য গাঁওবর্ত দেবতার পূজা করা হয়৷

আলোচনা শেষে একাডেমি শিল্পী ও শেরপুর থেকে
আগত হদি সম্প্রদায়ের শিল্পীরা তাঁদের কৃষ্টি কালচার তুলে ধরে দলীয় নৃত্য গান ও কীর্ওন পরিবেশন করে।