সব
facebook netrokonajournal.com
কেন্দুয়ায় ইটের দেয়াল তুলে গ্রামীণ রাস্তা বন্ধের অভিযোগ | নেত্রকোণা জার্নাল

কেন্দুয়ায় ইটের দেয়াল তুলে গ্রামীণ রাস্তা বন্ধের অভিযোগ

প্রকাশের সময়:

কেন্দুয়ায় ইটের দেয়াল তুলে গ্রামীণ রাস্তা বন্ধের অভিযোগ

ads1

নিজস্ব প্রতিবেদক :
নেত্রকোণার কেন্দুয়ায় রাস্তার মাঝে ইটের দেয়াল তুলে স্থানীয় বাসিন্দাদের চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে প্রতিপক্ষরা।

এঘটনাটি উপজেলার গন্ডা ইউপির কালিয়ান মাইজপাড়া গ্রামে ঘটেছে।

কালিয়ান মাইজপাড়া গ্রামে ফজু রহমানের ছেলে রফিক মিয়া ও তৌহিদ মিয়া গংরা এই রাস্তাটি বন্ধ করে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এঘটনায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কেন্দুয়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করছেন এলাকাবাসী।

অভিযোগে তারা বলেন,দীর্ঘদিনের পুরনো গ্রামে এই পথ দিয়ে স্কুল,কলেজ ও মাদ্রাসার শিক্ষার্থীসহ ৭০/৮০ টি পরিবারের প্রায় দুই শতাধিক মানুষ চলাচলে করে থাকেন।

বর্তমানে রাস্তাটির মাটি কেটে ও ওয়াল তুলে বন্ধ করে দেয়ায় চরম বেকায়দা পড়েছেন গ্রামবাসী।

বিষয়টি স্থানীয় ভাবে চেষ্টা তদবির করে ব্যর্থ হয়ে অবশেষ প্রশাসনের আশ্রায় নিয়েছে ভোক্তভোগীরা।

গতকাল সোমবার সরজমিনে গেলে দেখা যায়, কেন্দুয়া-আঠারবাড়ী সড়কে হতে ওই রাস্তার প্রবেশ মূখে কয়েকটি কলাগাছ রোপন করাসহ রাস্তাটি কিছু অংশ খেটে পাশের পুকুরে মিশানো হয়েছে এবং সরকারি রিং কালভার্টটি রাস্তা থেকে তুলে নেওয়া হয় ।

এর পরে দেয়াল নির্মাণকাজ শুরু করে। গ্রামে মানুষ নির্মাণাধীন দেয়াল টপকে পার হতেও দেখা যায়।

স্থানীয়দের অভিযোগ তারা নিরীহ মানুষ। প্রতি পক্ষেরা প্রভাবশালী। এই পথ দিয়ে তাদের পূর্বপুরুষরাও চলাচল করেছেন। সম্প্রতি ঈর্ষান্বিত হয়ে তাদের চলাচলের পথ বন্ধ করে দিতে চাইছে বলে অভিযোগ করেন প্রতিপক্ষরা।

স্থানীয় জানান, এটি আগে সরুপথ ছিল। পরে পাশে পুকুর দেয়ায় রাস্তাটি প্রশস্ত হয়। এই রাস্তাটি নিয়ে গত জুন মাসের শেষের দিকে দুই পক্ষের মাঝে বিরোধ দেখা দেয়।

গ্রামের বাসিন্দা আঃ কুদ্দুছ জানান, আমারা ৭০/৮০ টি পরিবারের একমাত্র চলাচলের পথ। দীর্ঘদিন ধরে আমরা ওই পথ দিয়ে যাতায়াত করি। আমরা তাদেরকে আমাদের পায়ে হেঁটে যাওয়ার জন্য একটু পথ দাও।

এটাও তারা দিচ্ছে না। আগে রাস্তায় কলাগাছ লাগাইছে, কাঁটা দিয়েছে, কেটে ফেলেছে এখন দেয়াল তুলছে। আমরা যারা এই পথ দিয়ে যাই সবাই নিরীহ মানুষ তারা প্রভাবশালী।

জমির মালিক তৌহিদ মিয়া জানান, রাস্তাটি আমার ব্যক্তিগত জমির ওপর দিয়ে গেছে। আমরা ৩ ভাই ও ভাতিজারা আছে। এখানে আমি বাড়ি করবো তাই জায়গাটা আমার দরকার।

এব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম কল্যাণ জানান, গ্রামের পায়ে হেঁটে চলা পুরানো রাস্তা এটি। এই রাস্তা দিয়ে ৭০/৮০টি পরিবার যাতায়াত করে।

রাস্তাটিতে কলাগাছ রোপন,কেটে ফেলেছে এবং দেয়াল তুলছেন খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে যান এবং রাস্তাটিতে দেয়াল তুলতে নিষেধ করেছে বলে জানান তিনি।

এব্যাপারে ইউএনও মাহমুদা বেগম জানান, বিষয়টি শুনে জরুরী ভিত্তিতে নিষ্পত্তির জন্য কেন্দুয়া থানা (ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) ওসি, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও স্থানীয় ভূমি কর্মকর্তা (নাইব) কে দ্বায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

ads1

আপনার মতামত লিখুন :

 ফেসবুক পেজ

 আজকের নামাজের ওয়াক্ত শুরু

    নেত্রকোণা, ময়মনসিংহ, ঢাকা, বাংলাদেশ
    রবিবার, ২ অক্টোবর, ২০২২
    ৫ Rabi' I, ১৪৪৪
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ৪:৩৫ পূর্বাহ্ণ
    সূর্যোদয়ভোর ৫:৫০ পূর্বাহ্ণ
    যোহরদুপুর ১১:৪৮ পূর্বাহ্ণ
    আছরবিকাল ৩:১২ অপরাহ্ণ
    মাগরিবসন্ধ্যা ৫:৪৬ অপরাহ্ণ
    এশা রাত ৭:০১ অপরাহ্ণ
ষষ্ঠীর মধ্য দিয়ে শুরু দূর্গাপূঁজা

ষষ্ঠীর মধ্য দিয়ে শুরু দূর্গাপূঁজা

৭ দফা দাবীতে নেত্রকোণায় সরকারি কর্মচারি দাবি আদায় ঐক্য পরিষদের মানববন্ধন

৭ দফা দাবীতে নেত্রকোণায় সরকারি কর্মচারি দাবি আদায় ঐক্য পরিষদের মানববন্ধন

শেখ হাসিনার সরকার প্রবীণদের কল্যাণে নানামুখী কর্মসূচি নিয়েছে : সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী

শেখ হাসিনার সরকার প্রবীণদের কল্যাণে নানামুখী কর্মসূচি নিয়েছে : সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী

দুর্গাপুরে শুভ্র তজুর উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ

দুর্গাপুরে শুভ্র তজুর উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ

ছাত্রকে বলৎকারের অভিযোগে শিক্ষক গ্রেপ্তার

ছাত্রকে বলৎকারের অভিযোগে শিক্ষক গ্রেপ্তার

জেলায় চ্যাম্পিয়ন কেন্দুয়ার নুরেছা দুঃখেয়ারগাতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়

জেলায় চ্যাম্পিয়ন কেন্দুয়ার নুরেছা দুঃখেয়ারগাতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়

সর্বশেষ সংবাদ সর্বাধিক পঠিত
 
উপদেষ্টা সম্পাদক : দিলওয়ার খান
সম্পাদক ও প্রকাশক : মুহা. জহিরুল ইসলাম অসীম  
অস্থায়ী কার্যালয় : এআরএফবি ভবন, ময়মনসিংহ রোড, সাকুয়া বাজার, নেত্রকোণা সদর, ২৪০০ ।
ফোনঃ ০১৭৩৫ ০৭ ৪৬ ০৪, বিজ্ঞাপনঃ ০১৬৪৫ ৮৮ ৪০ ৫০
ই-মেইল : netrokonajournal@gmail.com
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত।