সব
facebook netrokonajournal.com
কেন্দুয়ায় প্রধানমন্ত্রী''র উপহারের ঘরে এবার আগুন দিল দুর্বৃত্তরা | নেত্রকোণা জার্নাল

কেন্দুয়ায় প্রধানমন্ত্রী”র উপহারের ঘরে এবার আগুন দিল দুর্বৃত্তরা

প্রকাশের সময়:

কেন্দুয়ায় প্রধানমন্ত্রী”র উপহারের ঘরে এবার আগুন দিল দুর্বৃত্তরা

কেন্দুয়া প্রতিনিধি :
নেত্রকোণার কেন্দুয়ায় ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য নির্মাণাধীন প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর ভাংচুরের পর এবার আগুন দেয়ার ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনাটি শনিবার (১৩ আগস্ট ) ভোর রাত সাড়ে ৪টার দিকে উপজেলার বলাইশিমুল গ্রামে আশ্রায়ন প্রকল্পে এঘটনা ঘটে।

এর আগে গত ৩০ জুন বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে ওই প্রকল্পের নির্মাণাধীন ঘর ভাংচুর করেছিল দুর্বৃত্তরা।

খবর পেয়ে শনিবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন জেলা প্রশাসন অঞ্জনা খান মজলিশ, পুলিশ সুপার আকবর আলী মুন্সি, ইউএনও মাহমুদা বেগম, কেন্দুয়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার জোনাঈ আফ্রাদ, কেন্দুয়া থানা ওসি আলী হোসেন পি.পি.এম।

শনিবার দুপুরে সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নির্মাণাধীন ১৯টি ঘরের মধ্যে ৯/১০ টি ঘরের চালে টিন লাগানো হয়েছে। এসব ঘরের ৭ ও ৮ নং ঘরে পাটের মধ্যে দাহ্য পদার্থ দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয় দুবৃত্তরা।

সূত্র জানায়, বলাইশিমুল গ্রামের হাওড়ের পাশে ১ একর ৮৭ শতাংশ জায়গা জুড়ে একটি খেলার মাঠ রয়েছে।

ইতিমধ্যে মাঠে চার পাশে ৭৬ শতাংশ জায়গা দখল করে নিয়ে যায় পাশের ক্ষেতের মালিকরা। উপজেলা প্রশাসন মাঠের জায়গাটি দখল মুক্তকরণসহ দুই পাশে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর ১২টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের জন্য প্রকল্প গ্রহণ করে।

ঘর নির্মাণকাজের প্রস্তুতি জেনে এলাকাবাসী মাঠ রক্ষার দাবিতে গত ২৮মে মাঠেই মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে।

পরেরদিন ২৯মে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম, ইউএনও মাহমুদা বেগম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র আসাদুল হক ভূঁইয়া, ওসি আলী হোসেন মাঠে যান এবং আন্দোলনকারী ও এলাকাবাসীর সাথে মতবিনিময় করে মাঠের পূর্ব-উত্তর পাশে ঘর নির্মাণের সিদ্ধান্ত নিয়ে জায়গাটি মাপজোক করে চলে আসেন।

পরের দিন ৩০মে একদিকে ঘর নির্মাণের জন্য ইট, বালুসহ অন্যান্য নির্মাণসামগ্রী পাঠিয়ে কাজ শুরু করা হয়।

অপরদিকে ৩০মে মাঠ রক্ষার দাবি নিয়ে প্রশাসনে বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করে দেন। এই মামলার বাদী হন বলাইশিমুল গ্রামের বাসিন্দা হাবিবুর রহমান মণ্ডলসহ ৮ জন।

মামলায় বিবাদী করা হয় কেন্দুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও), সহকারী কমিশনার (ভূমি), উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও নেত্রকোনা জেলা প্রশাসককে।

শুনানি শেষে আদালত মামলাটি খারিজ করে দিলে গ্রামের একাংশ মানুষ মাঠ রক্ষা দাবী তুলে আন্দোলনে নামে। ইতিমধ্যে তারা ৪/৫ টি মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন।

এদিকে গত ৩০ জুন বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে এক দল দুর্বৃত্তরা প্রকল্পে এসে পাহারারত গ্রাম পুলিশের প্রতি অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে নির্মাণাধীন ঘর ভাঙচুর করে।

এ ঘটনায় দ্রুত বিচার আইনে মামলা হয়। এঘটনার প্রায় আড়াই মাসের মাথায় এসে নির্মাণাধীন ঘরে আগুন ধরিয়ে দুবৃত্তরা।

এব্যাপারে ইউএনও মাহমুদা বেগম
ঘর নির্মাণকাজে সার্বক্ষণিক পুলিশ ও গ্রাম পুলিশ পাহারায় রাখা হয়েছিল। শুক্রবার ভোর রাতে একদল লোক এসে নির্মাণাধীন ঘরে আগুন লাগিয়ে পালিয়ে যায়।

কেন্দুয়া থানা ওসি আলী হোসেন পিপিএম জানান, এঘটনায় মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :

 ফেসবুক পেজ

 আজকের নামাজের ওয়াক্ত শুরু

    নেত্রকোণা, ময়মনসিংহ, ঢাকা, বাংলাদেশ
    সোমবার, ৩ অক্টোবর, ২০২২
    ৬ Rabi' I, ১৪৪৪
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ৪:৩৫ পূর্বাহ্ণ
    সূর্যোদয়ভোর ৫:৫০ পূর্বাহ্ণ
    যোহরদুপুর ১১:৪৮ পূর্বাহ্ণ
    আছরবিকাল ৩:১২ অপরাহ্ণ
    মাগরিবসন্ধ্যা ৫:৪৫ অপরাহ্ণ
    এশা রাত ৭:০০ অপরাহ্ণ
বারহাট্টায় জাতীয় উৎপাদনশীলতা দিবস উদযাপন

বারহাট্টায় জাতীয় উৎপাদনশীলতা দিবস উদযাপন

কারাবন্দিদের সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

কারাবন্দিদের সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

মোহনগঞ্জ হাসপাতাল থেকে সোলার প্যানেল ও ব্যাটারী গায়েব

মোহনগঞ্জ হাসপাতাল থেকে সোলার প্যানেল ও ব্যাটারী গায়েব

আটপাড়ায় পথশিশুদের মাঝে শিক্ষাসামগ্রী বিতরণ

আটপাড়ায় পথশিশুদের মাঝে শিক্ষাসামগ্রী বিতরণ

আটপাড়ায় আউট অব স্কুল চিলড্রেন এডুকেশন প্রোগ্রামের কেন্দ্র পরিদর্শন

আটপাড়ায় আউট অব স্কুল চিলড্রেন এডুকেশন প্রোগ্রামের কেন্দ্র পরিদর্শন

কেন্দুয়ায় ব্রীজের দুই পাশেই ভাঙ্গা : যেনো দেখার কেউ নেই

কেন্দুয়ায় ব্রীজের দুই পাশেই ভাঙ্গা : যেনো দেখার কেউ নেই

সর্বশেষ সংবাদ সর্বাধিক পঠিত
 
উপদেষ্টা সম্পাদক : দিলওয়ার খান
সম্পাদক ও প্রকাশক : মুহা. জহিরুল ইসলাম অসীম  
অস্থায়ী কার্যালয় : এআরএফবি ভবন, ময়মনসিংহ রোড, সাকুয়া বাজার, নেত্রকোণা সদর, ২৪০০ ।
ফোনঃ ০১৭৩৫ ০৭ ৪৬ ০৪, বিজ্ঞাপনঃ ০১৬৪৫ ৮৮ ৪০ ৫০
ই-মেইল : netrokonajournal@gmail.com
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত।