সব
facebook netrokonajournal.com
পানিবন্দি অসহায় বানভাসি মানুষের পাশে দাঁড়ানো ইসলামী বিধান | নেত্রকোণা জার্নাল

পানিবন্দি অসহায় বানভাসি মানুষের পাশে দাঁড়ানো ইসলামী বিধান

প্রকাশের সময়:

পানিবন্দি অসহায় বানভাসি মানুষের পাশে দাঁড়ানো ইসলামী বিধান

ইসলামিক জার্নাল ডেস্ক:
আকস্মিক বন্যায় সিলেটসহ তৎপার্শ্ববর্তী এলাকায় পানিবন্দী হাজার হাজার মানুষ। সিলেট অঞ্চল ভয়াবহ বন্যায় ভাসছে। মানুষের ঘর-বাড়ি, স্কুল, কলেজ, মাদরাসাগুলো মারাত্মকভাবে বন্যাকবলিত। দরিদ্র মানুষের ঘরে খাবার নেই। গবাদিপশুর খাদ্য নেই। সুরমা-কুশিয়ারার বিভিন্ন জায়গায় ভাঙন দেখা দিয়েছে। লোকালয়ে পানি প্রবেশ করছে।

দুর্গত এলাকার সাধারণ মানুষ জন ত্রাণের অভাবে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ে ত্রাণ তৎপরতা খুবই কম। অবশ্য বন্যার্তদের সাহায্যে দলমত নির্বিশেষে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সরকারের পক্ষ থেকে আহ্বান জানানোর পরও পর্যাপ্ত ত্রাণের অভাবে বন্যা দুর্গত অঞ্চলের মানুষ খুবই দুর্বিষহ জীবন যাপন করছে।

বিপদগ্রস্তের সাহায্য ও অসহায়ের সহযোগিতা করা ইসলামের মহৎ ও মৌলিক শিক্ষা। মানবতাবোধ, সহমর্মিতা, স্বার্থহীন পরোপকার ও সহানুভূতি ইত্যাদি—ইসলামের বুনিয়াদি শিক্ষা।

সর্বশ্রেষ্ঠ মহামানব ও মানবজাতির পথপ্রদর্শক প্রিয়নবী (সা.)-কে আল্লাহ তাআলা মানবজাতির করুণাস্বরূপ পাঠিয়েছেন। আল্লাহ তাআলা পবিত্র কোরআনে বলেন, ‘আমি আপনাকে সমগ্র সৃষ্টির জন্য রহমত হিসেবেই প্রেরণ করেছি। ’ (সুরা আম্বিয়া, আয়াত: ১০৭)

পানিবন্দি অসহায় বানভাসি মানুষের পাশে দাঁড়ানো ও তাদের সাহায্য-সহযোগিতা করা ইসলামের বিধান। সমাজের বিত্তবানরা টাকাপয়সা, খাদ্য-বস্ত্র, পানীয় ও ওষুধ—ইত্যাদি নিয়ে স্বতঃস্ফূর্তভাবে বন্যাদুর্গতদের সাহায্যে এগিয়ে আসার সময় এখনই। ক্ষতিগ্রস্ত বানভাসি মানুষ অর্ধাহারে-অনাহারে অবর্ণনীয় দুর্ভোগে দিন কাটাচ্ছে। বন্যার্তদের কাছে একেকটি দিন যেন এখন—‘দুর্বিষহ কষ্টের অনন্তকাল’।

‘দীনে করো দান’ সওয়াব মিলবে অফুরান
বন্যার্ত অসহায়দের সেবায় সামর্থ্যবান প্রতিটি ব্যক্তির এগিয়ে আসা উচিত। তুলনামূলক বিপদগ্রস্ত ব্যক্তিকে সাহায্য করার বিনিময়ে আল্লাহ তাআলা সর্বোচ্চ প্রতিদান দেবেন। আল্লাহ তাআলা পবিত্র কোরআনে বলেন, ‘যারা আল্লাহর পথে তাদের সম্পদ ব্যয় করে, তাদের উপমা একটি বীজের মতো, যা উৎপন্ন করল সাতটি শীষ। প্রতিটি শীষে রয়েছে একশ দানা। আর আল্লাহ যাকে চান তার জন্য বাড়িয়ে দেন। আর আল্লাহ প্রাচুর্যময়, সর্বজ্ঞ। ’ (সুরা বাকারা, আয়াত: ২৬১)

অসহায়দের সাহায্য করলে সংগ্রাম-জিহাদের নেকি
দরিদ্রক্লিষ্ট বনি আদম ও অসহায় নারীদের সাহায্য করতে প্রিয়নবী (সা.) অনেক বেশি উৎসাহ দিয়েছেন। রাসুল (সা.) বলেন, ‘বিধবা ও অসহায়কে সাহায্যকারী ব্যক্তি আল্লাহর রাস্তায় জিহাদকারীর সমতুল্য। ’ তিনি আরও বলেন, এবং সে ওই নামাজ আদায়কারীর মতো যার ক্লান্তি নেই এবং ওই রোজা পালনকারীর মতো, যার রোজায় বিরাম নেই।(বুখারি, হাদিস নং: ৬০০৭)

অসহায়, পীড়িত, ক্ষুধার্ত-তৃষ্ণার্ত ও বিপদাক্রান্ত মানুষকে সহযোগিতা করলে আল্লাহ উভয় জগতে প্রতিদান দেবেন। আবু সাইদ খুদরি (রা.) থেকে বর্ণিত হাদিসে রাসুল (সা.) বলেছেন, ‘যে মুমিন কোনো মুমিনের ক্ষুধা নিবারণ করবে, আল্লাহ তাআলা তাকে কেয়ামতের দিন জান্নাতের ফল খাওয়াবেন। যে মুমিন কোনো মুমিনের তৃষ্ণা দূর করেছে, আল্লাহ তাআলা তাকে কেয়ামতের দিন মোহরাঙ্কৃত জান্নাতি সুধা থেকে পান করাবেন। যে মুমিন কোনো মুমিনকে বস্ত্র দান করবে, আল্লাহ তাআলা তাকে জান্নাতের উন্নতমানের সবুজ কাপড় পরাবেন। (তিরমিজি, হাদিস নং: ২৩৮৬)

আমি মনে করি, আগামী বছর থেকে কিছু ব্যবস্থা নিয়ে দুর্যোগের ক্ষয়ক্ষতি ও দুর্ভোগ কমিয়ে আনা সম্ভব। আগামী বছর সরকারের পক্ষ থেকে বন্যাক্রান্ত স্থানগুলো চিহ্নিত করে সঠিক উপায়ে বাঁধ ও বেড়িবাঁধ নির্মাণ করা প্রয়োজন। নদীতীরবর্তী এলাকাগুলোয় জিওটিউব (বালির বড় বড় বস্তা) ফেলার ব্যবস্থা, নদীর নাব্যতা বৃদ্ধির ব্যবস্থাসহ এমন সব কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা প্রয়োজন যেন সহজেই বন্যা মোকাবেলা করা যায়। এ সবকিছু সঠিকভাবে সম্পাদন করা হলে জনগণকে আর বন্যার কারণে চরম মানবিক বিপর্যয়ের মুখোমুখি হতে হবে না। ইনশাআল্লাহ

আসুন, নিজ নিজ অবস্থান থেকে মানবতার তরে সামর্থের আলোকে সাহায্যের হাত প্রসারিত করি। মানুষের কল্যাণসাধনে সর্বাত্মক চেষ্টা-সাধনা করি। বিশেষত, মহৎ এ কাজে এগিয়ে আসতে হবে বন্যার কবল থেকে মুক্ত প্রতিবেশী ইউনিয়ন, উপজেলা, জেলার বিত্তবানদের। সাধ্যানুযায়ী সচেষ্ট হতে হবে সকলকে। সরকারিভাবে ত্রাণ তৎপরতাসহ সার্বিক সাহায্য-সহযোগিতা বৃদ্ধি করাও সময়ের অপরিহার্য দাবি।

সমবেতভাবে আমরা প্রত্যেকটি মানুষ আমাদের এই অসহায় মানুষগুলোকে বাঁচানোর চেষ্টা করি। সমবেত চেষ্টায় অবশ্যই এই বিপদ থেকে উদ্ধার পাব আমরা।

সংকলন:
মাও: আবু তাহের নেত্রকোনী।
প্রতিষ্ঠাতা, দারুল উলুম ক্বাওমি মাদ্রাসা।
ভূগী (উত্তর পাড়া), পূর্বধলা, নেত্রকোণা।
নিয়মিত লেখক, ইসলামিক জার্নাল বিভাগ,
নেত্রকোণা জার্নাল ডটকম পত্রিকা।

আপনার মতামত লিখুন :

 ফেসবুক পেজ

 আজকের নামাজের ওয়াক্ত শুরু

    নেত্রকোণা, ময়মনসিংহ, ঢাকা, বাংলাদেশ
    সোমবার, ৩ অক্টোবর, ২০২২
    ৬ Rabi' I, ১৪৪৪
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ৪:৩৫ পূর্বাহ্ণ
    সূর্যোদয়ভোর ৫:৫০ পূর্বাহ্ণ
    যোহরদুপুর ১১:৪৮ পূর্বাহ্ণ
    আছরবিকাল ৩:১২ অপরাহ্ণ
    মাগরিবসন্ধ্যা ৫:৪৫ অপরাহ্ণ
    এশা রাত ৭:০০ অপরাহ্ণ
এর আরও খবর
জুমার দিনের ফজিলত ও জুমার আগে চার আমল

জুমার দিনের ফজিলত ও জুমার আগে চার আমল

প্রস্রাব-পায়খানার পর ঢিলা বা টিস্যু ব্যবহারের পরেও পানি খরচ কি খুব জরুরি?

প্রস্রাব-পায়খানার পর ঢিলা বা টিস্যু ব্যবহারের পরেও পানি খরচ কি খুব জরুরি?

মাদকের ভয়াল থাবা: শাস্তি ও প্রতিকারের উপায়

মাদকের ভয়াল থাবা: শাস্তি ও প্রতিকারের উপায়

দুর্গাপুরে আবু তালহা রা: মাদ্রাসায় ২৬ জন শিক্ষার্থীর কোরআন শরীফ ছবকদান

দুর্গাপুরে আবু তালহা রা: মাদ্রাসায় ২৬ জন শিক্ষার্থীর কোরআন শরীফ ছবকদান

কন্যা সন্তান উত্তম : মুফতি আতাউল্লাহ বাশার

কন্যা সন্তান উত্তম : মুফতি আতাউল্লাহ বাশার

আত্মহত্যা থেকে বাঁচার উপায় : মুফতি আতাউল্লাহ বাশার

আত্মহত্যা থেকে বাঁচার উপায় : মুফতি আতাউল্লাহ বাশার

সর্বশেষ সংবাদ সর্বাধিক পঠিত
 
উপদেষ্টা সম্পাদক : দিলওয়ার খান
সম্পাদক ও প্রকাশক : মুহা. জহিরুল ইসলাম অসীম  
অস্থায়ী কার্যালয় : এআরএফবি ভবন, ময়মনসিংহ রোড, সাকুয়া বাজার, নেত্রকোণা সদর, ২৪০০ ।
ফোনঃ ০১৭৩৫ ০৭ ৪৬ ০৪, বিজ্ঞাপনঃ ০১৬৪৫ ৮৮ ৪০ ৫০
ই-মেইল : netrokonajournal@gmail.com
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত।