পূর্বধলায় শ্বশুর ও দেবরদের হাতে গৃহবধূ খুন: দেবর শাশুড়ি আটক

ছেলে মো. আলিফ মিয়াকে (৩) গুরুতর আহত অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়েছে

প্রকাশিত: ২:১৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩, ২০২৩

পূর্বধলা সংবাদদাতা:
নেত্রকোনার পূর্বধলায় পারিবারিক দ্বন্ধে শ্বশুর ও দেবরদের হাতে রানু বেগম (৩৬) নামে এক পুত্রবধু ঘটনাস্থলে খুন হয়েছে।

এসময় নিহত রানু বেগমের ছেলে মো. আলিফ মিয়াকে (৩) গুরুতর আহত অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৩ আগস্ট) উপজেলার নারান্দিয়া ইউনিয়নের হিরনপুর কুমারকান্দা গ্রামে এ মর্মান্তিক হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে।

হত্যাকান্ডের সংবাদ পেয়ে জেলা পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) শাহ্ শিবলী সাদিক ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেন।

এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, উপজেলার কুমারকান্দা গ্রামের মো. আব্দুর রাশিদের বড় ছেলে মো. খোকন মিয়া ৮ বছর বিদেশে থাকার পর বাড়ি ফিরে এসে তার স্ত্রী রানু বেগমকে কয়েক শতাংশ জমি লিখে দিলে পরিবারের মধ্যে দ্বন্ধের সৃষ্টি হয়।

জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বৃহস্পতিবার দুপুরে খোকন মিয়ার ছোট ভাই মো. সুজন মিয়া (৩১), মো. রুবেল মিয়া (২৯), সুমন মিয়া (২৭), মো. ইমন মিয়া (২৫), তাদের পিতা আব্দুর রাশিদ ও মাতা রাবেয়া (৫০) মিলে ঘরের দরজা বন্ধ করে রানু বেগম ও তার ছেলেকে অস্ত্রের আঘাত করলে ঘটনাস্থলেই রানু বেগম নিহত হয়।

পরে স্থানীয়রা জখম হওয়া রনিকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।

থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। খুনের সাথে জড়িত অভিযোগে সুজন মিয়া ও তার মা রাবেয়াকে আটক করা হয়েছে।