সব
facebook netrokonajournal.com
বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে মদনে আমন ধানের ক্ষতি | নেত্রকোণা জার্নাল

বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে মদনে আমন ধানের ক্ষতি

প্রকাশের সময়:

বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে মদনে আমন ধানের ক্ষতি ছবিঃ নেত্রকোণা জার্নাল

ads1

জাকির আহমেদ, মদনঃ বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে মগড়া নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে মঙ্গলবার হঠাৎ করে নেত্রকোনার মদন উপজেলার সদ্য রোপনকৃত নিম্নাঞ্চলের আমন জমিতে পানি প্রবেশ করে ২০ হেক্টর জমির আমনের চারা তলিয়ে গেছে। বাকী জমিও হুমকির মুখে রয়েছে। বর্ষণ ও পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় আমন কৃষকগণ শঙ্কিত হয়ে পড়েছেন। এবার বোরো ধানের বাম্পার ফলন ও ভালো দাম পেয়ে এলাকার কৃষকগণ আমন ধান চাষের ওপর মনোযোগ দেয়।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, চলতি আমন মৌসুমে মদন পৌরসভাসহ উপজেলার ৮ ইউনিয়নে ১১ হাজার ৭শ ৫০ হেক্টর জমিতে আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। এর মধ্যে ১০ হাজার ৫শ হেক্টর জমিতে আমন রোপন করা হয়েছে। মঙ্গলবার হঠাৎ পানি বৃদ্ধি পেয়ে রোপনকৃত ২০ হেক্টর আমন জমি তলিয়ে গেছে। আরো বহুজমি তলিয়ে যাওয়ার হুমকির মুখে রয়েছে। তবে কৃষকদের মতে তলিয়ে যাওয়া জমির পরিমাণ আরো অনেক বেশী। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় আমন চাষে বাম্পার ফলনের আশা ছিলো কৃষকদের। পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় দুশ্চিন্তায় পড়েছেন আমন চাষীরা।

মঙ্গলবার সকালে উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ হাসনপুর মৌজায় ডুবে যাওয়া আমন জমির ছবি তুলতে গিয়ে দুশ্চিন্তাগ্রস্থ ক্ষুদ্র কৃষক ফতেপুর গ্রামের আলাল মিয়া, ইঞ্জিল খান, রুবেলতা লুকদার, রাজিব মিয়া ও সাইফুল তালুকদারের সাথে দেখা হয়।

এ সময় তারা এ প্রতিনিধিকে জানান, বোরো ধানের বাম্পার ফলন ও দাম ভালো পেয়েছিলাম। তাই বন্যায় বীজ তলা নষ্ট হওয়ার পরেও অধিকদামে চারা কিনে অনেক আশা নিয়ে অন্যান্য বছরের তুলনার অধিক জমিতে আমন ধান রোপন করেছিলাম। বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে মগড়া নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে আমাদের রোপনকৃত ১০ একর জমির অর্ধেক তলিয়ে গেছে বাকী জমিও হুমকির মুখে রয়েছে। পানি যেভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে সব জমি তলিয়ে যাবার আশঙ্কা রয়েছে। সব ফসল তলিয়ে গেলে আমাদের পরিবারে চরম দূরাবস্থা দেখা দিবে।

ফতেপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম চৌধুরী জানান, বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে মগড়া নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে অত্র ইউনিয়নের কয়েকটি হাওরে মঙ্গলবার হঠাৎ পানি প্রবেশ করে প্রায় ৫০ হেক্টর রোপনকৃত আমন জমি তলিয়ে গেছে। শতাধিক হেক্টর জমি তলিয়ে যাওয়ার হুমকির মুখে রয়েছে। আমি কৃষকদের সাথে যোগাযোগ রেখে উপজেলা প্রশাসনকে কৃষকদের ক্ষয়ক্ষতির ব্যাপারে অবগত করছি।

মদন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ নাজমুল হাছান জানান, বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে মগড়া নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় উপজেলায় সদ্য রোপনকৃত ২০ হেক্টর আমন জমি পানিতে তলিয়ে যাওয়ার খবর পেয়েছি। আরো বহু জমি তলিয়ে যাওয়ার হুমকির মুখে রয়েছে। তবে আমার লোকজন মাঠে আছে। তারা আসলে ক্ষয়ক্ষতির সঠিক পরিমাণ জানা যাবে। এ বছর উপজেলায় ১০ হাজার ৫শ হেক্টর জমিতে আমন রোপন করা হয়। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে এ বছর আমনের বাম্পার ফলন হবে।

ads1

আপনার মতামত লিখুন :

 ফেসবুক পেজ

 আজকের নামাজের ওয়াক্ত শুরু

    নেত্রকোণা, ময়মনসিংহ, ঢাকা, বাংলাদেশ
    মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২
    ১ Rabi' I, ১৪৪৪
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ৪:৩৩ পূর্বাহ্ণ
    সূর্যোদয়ভোর ৫:৪৯ পূর্বাহ্ণ
    যোহরদুপুর ১১:৪৯ পূর্বাহ্ণ
    আছরবিকাল ৩:১৪ অপরাহ্ণ
    মাগরিবসন্ধ্যা ৫:৫০ অপরাহ্ণ
    এশা রাত ৭:০৫ অপরাহ্ণ
মদনে মাছ মারতে গিয়ে হাওরের পানিতে ডুবে একজনের মৃত্যু

মদনে মাছ মারতে গিয়ে হাওরের পানিতে ডুবে একজনের মৃত্যু

মদনে বজ্রপাতে কৃষকের মত্যু

মদনে বজ্রপাতে কৃষকের মত্যু

মদনে আওয়ামীলীগ বিএনপির সংঘর্ষ: ওসিসহ আহত ১৭

মদনে আওয়ামীলীগ বিএনপির সংঘর্ষ: ওসিসহ আহত ১৭

বিশ্ব রেকর্ড হলো না, ৮৩ কিলোমিটার গিয়ে অসুস্থ হয়ে সাঁতার শেষ করলেন ক্ষিতীন্দ্র

বিশ্ব রেকর্ড হলো না, ৮৩ কিলোমিটার গিয়ে অসুস্থ হয়ে সাঁতার শেষ করলেন ক্ষিতীন্দ্র

মদনে শ্রেনিকক্ষে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ শিক্ষকের বিরুদ্ধে

মদনে শ্রেনিকক্ষে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ শিক্ষকের বিরুদ্ধে

আবারও সাঁতারে বিশ্ব রেকর্ড গড়তে যাচ্ছেন নেত্রকোণার ক্ষিতীন্দ্র চন্দ্র বৈশ্য

আবারও সাঁতারে বিশ্ব রেকর্ড গড়তে যাচ্ছেন নেত্রকোণার ক্ষিতীন্দ্র চন্দ্র বৈশ্য

সর্বশেষ সংবাদ সর্বাধিক পঠিত
 
উপদেষ্টা সম্পাদক : দিলওয়ার খান
সম্পাদক ও প্রকাশক : মুহা. জহিরুল ইসলাম অসীম  
অস্থায়ী কার্যালয় : এআরএফবি ভবন, ময়মনসিংহ রোড, সাকুয়া বাজার, নেত্রকোণা সদর, ২৪০০ ।
ফোনঃ ০১৭৩৫ ০৭ ৪৬ ০৪, বিজ্ঞাপনঃ ০১৬৪৫ ৮৮ ৪০ ৫০
ই-মেইল : netrokonajournal@gmail.com
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত।